চাকরি না পেয়ে আত্মহত্যা! এ দায় কার? প্রশ্ন রাজ্যের হবু শিক্ষকদের

বেকারত্বের যন্ত্রনা সহ্য করতে না পেরে আত্মহত্যার পথ বেছে নেয় রাজ্যের এক যুবক বাবু দোলুই। গত ২২ অক্টোবর, ২০২১ তারিখ তা আমরা প্রকাশ করেছিলাম ExamBangla.com -এর পাতায়। এই ঘটনার সুবিচার চেয়ে শোকসভা পালন করলেন রাজ্যের হবু শিক্ষকরা। মুর্শিদাবাদ জেলার বড়ঞা থানার বড়া গ্রামের হতদরিদ্র এক দিনমজুর পরিবারের মেধাবী ছাত্র বাবু দোলুই লেখাপড়া করেও পায়নি কষ্টের ফল। সেই ক্ষোভে রাজ্যের চাকরি ব্যবস্থার প্রতি তীব্র ধিক্কার জানিয়ে পৃথিবীর কোল থেকে চিরতরে বিদায় নেয় বাবু। এমনকি আত্মহত্যার পূর্বে সে তার সুইসাইড নোটে উগড়ে দিয়েছে তীব্র ক্ষোভ- ‘আমি বাবু দোলুই, বিদায় নিচ্ছি। আমাদের সমাজ ও রাজ্য খুব খারাপ।’ যা দেখে স্তম্ভিত রাজ্যের শিক্ষামহল।

এদিন শুক্রবার গান্ধী মূর্তির পাদদেশে বাবু দোলুই -এর আত্মহত্যা কে কেন্দ্র করে ছাত্র অধিকার মঞ্চের উদ্যোগে এক শোকসভা পালন করা হয়। শুক্রবার এই প্রতিবাদ মিছিলে বাবু দোলুই এর আত্মহত্যার কারণ হিসেবে পিএসসির দুর্নীতিকেই দায়ী করা হয়েছে। এমনকি শোকসভায় শামিল হওয়া শিক্ষা মহলের বক্তব্য, এই হত্যা যজ্ঞে দায়কারীদের খুঁজে বের করে শাস্তি দিতে হবে। তাঁরা জানান, রাজ্যের সমস্ত চাকরিপ্রার্থীদের একই অবস্থা। তাদের ওপরও সৃষ্টি হচ্ছে মানসিক চাপের বোঝা। তারা আর সহ্য করতে পারছেনা বেকারত্বের জীবন। ২৪ বছরের বাবু দোলুই আত্মহত্যার ঘটনায় শিক্ষা মহল শোকাহত। তাই বাবু দোলুই এর আত্মার শান্তি কামনার্থে গত শুক্রবার দীর্ঘ ২৪ মিনিট নীরবতা পালন করে আন্দোলনকারীরা। হাতে ব্যানার হিসেবে ছিল বাবু দোলুই এর সুসাইড নোটে লেখা সেই ছোট্ট বেদনাদায়ক লেখাটি এবং প্রতিবাদী চাকরিপ্রার্থীদের চোখে বন্ধ ছিল কালো কাপড়।

আরও পড়ুনঃ
NCTE নতুন নির্দেশিকায় চরম সংকটে ডিএলএড পড়ুয়ারা
প্রাইমারি টেট রেজাল্ট প্রকাশের দাবিতে আন্দোলন