নিয়ম না মানলে বন্ধ হবে পরীক্ষা! টেট নিয়ে নতুন নির্দেশিকা আনতে চলেছে প্রাথমিক শিক্ষা পর্ষদ

রাজ্য জুড়ে অনুষ্ঠিত হলো প্রাইমারি টেট ২০২২

টেট পরীক্ষায় বিশৃঙ্খলা রুখতে তৎপর পর্ষদ। নেওয়া হচ্ছে একাধিক পদক্ষেপ। এবার টেট পরীক্ষার্থীদের জন্য এক কঠোর নিয়ম আসতে চলেছে পর্ষদের তরফে। সূত্রের খবর, টেট পরীক্ষাকেন্দ্রে বা পরীক্ষা চলাকালীন সময়ে যদি কোনও পরীক্ষার্থী বিশৃঙ্খলা সৃষ্টি করেন, অথবা নিয়ম অগ্রাহ্য করেন তবে সেই পরীক্ষার্থীর পরীক্ষা বাতিল করা হবে। এমনকি ভবিষ্যতেও তাঁর টেট পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করা অনিশ্চিত হয়ে পড়বে। এহেন সিদ্ধান্ত গ্রহণের পথে প্রাথমিক শিক্ষা পর্ষদ।

চলতি বছরের টেট পরীক্ষা নিয়ে জল্পনা তুঙ্গে। শিক্ষক নিয়োগের দুর্নীতি নিয়ে যেভাবে রাজ্য, রাজনীতি সরগরম সে পরিস্থিতিতে টেট পরীক্ষাকেন্দ্রে যে বিশৃঙ্খলা সৃষ্টি হতেই পারে এমনটাই চিন্তা করছে পর্ষদ। সেহেতু পরীক্ষা চলাকালীন নিরাপত্তা সুনিশ্চিত করতে গ্রহণ করা হচ্ছে বিভিন্ন পদক্ষেপ। আনা হচ্ছে একাধিক বিধিনিষেধ। প্রয়োজনীয় নিরাপত্তা ব্যবস্থা। সম্প্রতি গাইডলাইন প্রকাশ করে পর্ষদ জানিয়েছে পরীক্ষাকেন্দ্রে পরীক্ষার্থীরা কি করতে পারবেন আর কি পারবেন না তার বিস্তারিত নিয়মাবলী। এছাড়া শোনা যাচ্ছে টেট পরীক্ষাকেন্দ্রে ভুয়ো পরীক্ষার্থী রুখতে ও সার্বিক নিরাপত্তা বজায় রাখতে রাখা হবে বায়োমেট্রিক অ্যাটেনডেন্সের ব্যবস্থাও।

যার দ্বারা ফেস স্ক্যান ও সই স্ক্যান করা হবে পরীক্ষার্থীদের। এছাড়া পরীক্ষাকেন্দ্রের ভিতরে থাকবে ভিডিও রেকর্ডিং এর ব্যবস্থা। অর্থাৎ পরীক্ষাকেন্দ্রের ভিতরে সিসিটিভি ক্যামেরায় নজরদারির আওতায় থাকবেন পরীক্ষার্থীরা। এছাড়া পর্ষদের গাইডলাইনে বলা হয়েছে পরীক্ষাকেন্দ্রে পরীক্ষার্থীরা নিজেদের সাথে কোনোও ইলেকট্রনিক্স বস্তু, ঘড়ি, কাগজ, গহনা, কোনোওপ্রকার খাদ্যসামগ্রী এমনকি পেন্সিল ব্যাগ ও বহন করতে পারবেন না। অতএব বোঝাই যাচ্ছে একপ্রকার নিশ্ছিদ্র নিরাপত্তার অধীনেই থাকতে চলেছে টেট ২০২২।

আরও পড়ুনঃ পর্ষদের আচরণে ক্ষুব্ধ বিচারপতি, বললেন দরকারে ‘বন্ধ করবেন পরীক্ষা’

সূত্রের খবর, এবার এক নতুন নির্দেশিকা আনতে চলেছে প্রাথমিক শিক্ষা পর্ষদ। সেই নির্দেশিকায় বলা থাকবে, টেট পরীক্ষাকেন্দ্রে কোনোও পরীক্ষার্থী শৃঙ্খলা ভঙ্গ করলে অথবা পরীক্ষাকেন্দ্রিক নিয়ম অগ্রাহ্য করলে তার পরীক্ষা বাতিল করবে পর্ষদ। এবং ভবিষ্যতের জন্য তাঁর টেট পরীক্ষায় বসা অনিশ্চিত হবে। পর্ষদের তরফে জানানো হয়েছে, নভেম্বরের শেষ সপ্তাহ থেকেই পরীক্ষার্থীদের অ্যাডমিট কার্ড দেওয়া হবে। এবং অ্যাডমিট কার্ডে উল্লেখিত গাইডলাইনের মধ্যেই এই নতুন নিয়মের উল্লেখ করা হবে।

প্রসঙ্গত, রাজ্যে প্রাথমিকের নিয়োগ পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে ডিসেম্বরের ১১ তারিখ। প্রায় সাত লক্ষ পরীক্ষার্থী অংশগ্রহণ করতে চলেছে এই পরীক্ষায়। তার আগেই পরীক্ষাকেন্দ্রে শৃঙ্খলা বজায় রাখতে যাবতীয় পদক্ষেপ গ্রহণের সিদ্ধান্ত নিতে চলেছে পর্ষদ। যদিও টেট পরীক্ষাকে কেন্দ্র করে পর্ষদের চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত গৃহীত হবে রাজ্য স্কুল শিক্ষা দফতরের সঙ্গে বৈঠকের পর।