দিব্যি চাকরি করছিলেন, কোথায় গেলেন ‘অযোগ্য’ দের তালিকায় থাকা শিক্ষক-শিক্ষিকারা?

দিব্যি চাকরি করছিলেন

সম্প্রতি স্কুল সার্ভিস কমিশনের তরফে প্রকাশ পেয়েছে নবম-দশমের বেআইনিভাবে নিয়োগ পাওয়া প্রার্থীদের তালিকা। সিবিআই তদন্ত অনুসারে তালিকায় থাকা প্রার্থীরা প্রত্যেকেই ‘অযোগ্য’ ভাবে নিয়োগ পেয়েছিলেন। কিন্তু সেই প্রার্থীরা এখন কোথায়? সূত্রের খবর, রাজ্যের বিভিন্ন স্কুলে চাকুরিরত এই ‘অযোগ্য’ প্রার্থীরা তালিকা প্রকাশের পরই বেপাত্তা হয়েছেন।

শিক্ষক নিয়োগ দুর্নীতি কান্ডে বারবার প্রশ্নের মুখে রাজ্য। আদালতে চলা মামলায় সিবিআই তদন্তের নির্দেশ দেন বিচারপতি। তদন্ত শুরু হতেই সামনে আসে চাঞ্চল্যকর সব তথ্য। আদালতে সিবিআই দাবি রাখে, নবম-দশম শ্রেণীতে বহু অযোগ্য প্রার্থীকে অতিরিক্ত নম্বর দিয়ে পাশ করানো হয়েছে। এবং নিয়োগও পেয়েছেন তাঁরা। এরপরই বিচারপতির নির্দেশে এই অযোগ্য প্রার্থীদের তালিকা প্রকাশ করে কমিশন। প্রথমে ১৮৩ জনের নাম প্রকাশ পেতেই অভিযোগ ওঠে তালিকায় থাকা ১০২ জন চাকরিতে যোগ দেননি। এরপর ফের ৪০ জন প্রার্থীর নাম, রোল সমন্বিত তালিকা এবং ওএমআর শিট প্রকাশ পায়। এরপরই ৩০ জন প্রার্থী শরণাপন্ন হন এসএসসির। তাঁদের দাবি আদতেই চাকরিতে যোগ দেননি তাঁরা।

FB Join

আরও পড়ুনঃ কত দ্রুত নিয়োগ পেতে চলেছেন টেট প্রার্থীরা

এইসব অভিযোগের মাঝেই চাকুরিরত অযোগ্য প্রার্থীদের খোঁজে চলে তদন্ত। কিন্তু খোঁজ নিতেই মেলে অবাক তথ্য। তালিকা প্রকাশ পেতেই স্কুলে আসা বন্ধ করেছেন এই শিক্ষক-শিক্ষিকারা। রীতিমতো বেপাত্তা হয়েছেন তাঁরা! এমনকি ঠিকানায় পৌছলেও দেখা মিলছে না তাঁদের। কোনও প্রশ্নের উত্তর দিতে বা মুখ দেখাতে নারাজ তাঁরা। এক্ষেত্রে ধারণা করা যাচ্ছে, বেআইনি নিয়োগ তালিকা সংক্রান্ত প্রশ্নের মুখে পড়তেই আড়ালে গিয়েছেন এই প্রার্থীরা।