পর্ষদের আচরণে ক্ষুব্ধ বিচারপতি, বললেন দরকারে ‘বন্ধ করবেন পরীক্ষা’!

পর্ষদের আচরণে ক্ষুব্ধ বিচারপতি

রাজ্যে নিয়োগ সংক্রান্ত ক্ষেত্রে একাধিক মামলা চলছে আদালতে। মামলার শুনানিতে গুরুত্বপূর্ণ নির্দেশ দিয়েছেন কলকাতা হাইকোর্টের বিচারপতি অভিজিৎ গঙ্গোপাধ্যায়। তবে সেই নির্দেশ অনুসারে উপযুক্ত প্রতিক্রিয়া আসছে না পর্ষদের তরফে। বিচারপতি গঙ্গোপাধ্যায়ের কথায়, “পর্ষদ বন্ধুর মতো আচরণ করছেন না”। অতএব দরকার পড়লে তিনি বন্ধ করবেন টেট পরীক্ষা।

রাজ্যে প্রাথমিকের নিয়োগে একাধিক জটিলতা অব্যাহত। এই নিয়োগ সংক্রান্ত বহু মামলার রায় দিয়েছেন বিচারপতি অভিজিৎ গঙ্গোপাধ্যায়। বেশ কিছু ক্ষেত্রে নির্দেশ দিয়েছেন পর্ষদকে। তবে সেই নির্দেশের পরিপ্রেক্ষিতে পর্ষদের ভূমিকায় ক্ষুব্ধ বিচারপতি এদিন বলেন, নির্দেশ অনুসারে কাজ না হলে তিনি বন্ধ করবেন পরীক্ষা।

আরও পড়ুনঃ প্রাইমারি টেট গণিত পেডাগজি প্র্যাকটিস সেট

প্রসঙ্গত, বিচারপতি গঙ্গোপাধ্যায় বরাবরই চাকরিপ্রার্থীদের পাশে দাঁড়িয়েছেন। চাকরিপ্রার্থীরা যাতে চাকরি পান, তাঁদের স্বার্থ যাতে রক্ষা হয় সেই দিকটিই দেখেছেন তিনি। তিনি বলেন, “চাকরিপ্রার্থীদের চাকরি দেওয়াটা জরুরি কারণ এটা তাঁদের চাওয়া পাওয়ার বিষয়”। এই মর্মে তিনি বলেছিলেন, নিয়োগ প্রক্রিয়ায় তিনি বাধা সৃষ্টি করবেন না। যদি এবিষয়ে কোনও মামলা চলে তবে তার বিচার হবে কিন্তু সে কারণে নিয়োগ প্রক্রিয়া বন্ধ করবেন না তিনি। তবে একথাও বলেছিলেন, তেমন গুরুতর অভিযোগ এলে তা তিনি এড়িয়ে যাবেন না। এদিন টেট সংক্রান্ত একটি মামলা চলাকালীন বিচারপতি গঙ্গোপাধ্যায় তাঁর আগের বক্তব্য প্রত্যাহার করে বলেন পর্ষদ যদি নির্দেশ না মানেন, অথবা আইন অনুসারে কাজ না করেন তবে তিনি বন্ধ করবেন পরীক্ষা।

রাজ্যে আগামী ১১ই ডিসেম্বর প্রাথমিকে নিয়োগের টেট পরীক্ষা। সেই অনুযায়ী প্রস্তুতি গ্রহণ করছে পর্ষদ। আবেদন জমা পড়েছে প্রায় সাত লক্ষ পরীক্ষার্থীর। তবে এসবের মধ্যে বিচারপতি গঙ্গোপাধ্যায়ের এহেন বক্তব্য নিঃসন্দেহে তাৎপর্য রাখে।