রাজ্যে নতুন কর্মসংস্থানের সুযোগ, ঘোষণা করলেন মুখ্যমন্ত্রী!

রাজ্যে নতুন কর্মসংস্থানের সুযোগ

মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় রাজ্যে কর্মসংস্থান নিয়ে একটি গুরুত্বপূর্ণ ঘোষণা করলেন। এদিন জেলায় প্রশাসনিক বৈঠকে একগুচ্ছ প্রকল্প উদ্বোধনের পাশাপাশি রাজ্যের বিভিন্ন জেলায় জব ফেয়ার নিয়ে গুরুত্বপূর্ণ মন্তব্য করেন। এছাড়াও রাজ্যে নতুন কারখানা স্থাপন করা হবে বলে তিনি জানান। ফলে রাজ্যের বেকার যুবক- যুবতীদের কর্মসংস্থান হবে।

রাজ্যে কর্মসংস্থানের জন্য জেলায় জেলায় জব ফেয়ারের (Job Fair) আয়োজন করা হচ্ছে। কিন্তু সেই মেলা নিয়ে অভিযোগ রয়েছে প্রচুর। প্রতিশ্রুতি দিলেও চাকরি না দেওয়ার অভিযোগ বারবার উঠেছে প্রশাসনের প্রতি। এবার সচিবদের কড়া হাতে সেই পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণের নির্দেশ দিলেন মুখ্যমন্ত্রী। যাতে সুষ্ঠভাবে জব ফেয়ার সম্পন্ন করা যায়, এবং সঠিকভাবে নিয়োগ করা করা হয়, তা দেখার নির্দেশ দিয়েছেন মমতা।

চাকরির খবরঃ প্রচুর শূন্যপদে হেড কনস্টেবল নিয়োগ

রাজ্য সরকারের অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ প্রকল্প সবুজ সাথী। এই প্রকল্পে নবম থেকে দ্বাদশ শ্রেণির ছাত্রছাত্রীদের সাইকেল বিতরণ করা হয়। ২০১৫ সালে চালু হয় এই ‘সবুজ সাথী’ প্রকল্প। এর সাহায্যে যেমন একদিকে দূরদূরান্ত থেকে ছাত্রছাত্রীরা সহজেই স্কুলে যেতে পারছে তেমনি দূষণমুক্ত পরিবেশ সৃষ্টিতেও ভূমিকা রয়েছে। প্রত্যন্ত এলাকা সহ মফস্বল থেকে শহরের মানুষের যাতায়াতের সুরাহা হয়েছে এই প্রকল্পে। ২০১৫ সাল থেকে এ পর্যন্ত প্রায় এক কোটি সাইকেল বিতরণ করা হয়েছে। রাজ্যে এত সাইকেল সরকারের তরফে দেওয়া হয়। কিন্তু সাইকেল বাইরে থেকে ক্রয় করতে হয় সরকারকে। রাজ্যে সাইকেল তৈরীর কারখানা নেই।

মুখ্যমন্ত্রীর আক্ষেপ, যে একটি সাইকেল তৈরির কারখানা ছিল তাও লগ্নির অভাবে ধুঁকছে। এই জন্য এদিন মুখ্যমন্ত্রী ঘোষণা করেন খড়্গপুরের শিল্পপার্কে তৈরি হবে সাইকেল হাব। এই হাবেই তৈরি সাইকেল রাজ্যব্যাপী সবুজ সাথী প্রকল্পে বিতরিত হবে। এর ফলে, প্রচুর কর্মসংস্থান তৈরি হবে রাজ্যে। এদিন প্রশাসনিক বৈঠকে যে পাঁচজন বিশিষ্ট শিল্পপতি উপস্থিত ছিলেন, তাদেরই একজনকে হাব তৈরীর জন্য জমি দেওয়া হবে খড়্গপুরে।

চাকরির খবরঃ মাধ্যমিক পাশে পৌরসভায় কর্মী নিয়োগ চলছে

সবমিলিয়ে রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় মেদিনীপুরের সভা থেকে একাধিক কর্মসংস্থান বৃদ্ধি করার বার্তা দিয়েছেন। রাজ্যের চাকরি প্রার্থীদের আশা বিভিন্ন জেলায় আয়োজিত জব ফেয়ার থেকে নিয়োগ পাওয়া যাবে। পাশাপাশি নতুন শিল্প চালু হলে প্রচুর সংখ্যক বেকার প্রার্থীরা চাকরি পাবেন।