স্কুল সার্ভিস কমিশন শিক্ষক নিয়োগে নতুন নিয়ম, খুব শীঘ্রই বিজ্ঞপ্তি দেবে এসএসসি

মাধ্যমিক রেজাল্ট 2022

দীর্ঘ ৬ বছর পরে সুখবর পেতে চলছে রাজ্যের চাকরিপ্রার্থীরা। পশ্চিমবঙ্গে প্রায় ৬ বছর পর নতুন করে শিক্ষক নিয়োগের বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ পেতে পারে বলে সরকারী তরফে জানানো হয়েছে। নতুন শিক্ষক নিয়োগের খবর প্রকাশ্যে আসতেই বিভিন্ন মহলে পূর্ববর্তী বছরে শিক্ষক নিয়োগে দুর্নীতি নিয়ে আলোচনা মাথাচাড়া দিয়ে উঠেছে। অস্বচ্ছতার অভিযোগ এবং দুর্নীতির বিরুদ্ধে মামলাও চলছে কলকাতা হাইকোর্টে। এরই মাঝে ফের মাধ্যমিক ও উচ্চমাধ্যমিক স্তরে শিক্ষক নিয়োগের বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করতে চলেছে স্কুল সার্ভিস কমিশন।

WBSSC SLST New Rule 2022

নতুন বিজ্ঞপ্তি প্রকাশের আগেই নিয়োগ দুর্নীতি রোধে কড়া পদক্ষেপ নিতে চলছে রাজ্যের স্কুল সার্ভিস কমিশন। ইতিমধ্যে নতুন নিয়ম তৈরীর কাজও শেষ করে ফেলেছে স্কুল সার্ভিস কমিশন। পরীক্ষা পদ্ধতিতে আমূল পরিবর্তন আনা হয়েছে বলে সূত্র মারফত খবর। তাছাড়া নেট, সেটের ধাঁচেই এবার স্কুল সার্ভিস কমিশন মাধ্যমিক ও উচ্চমাধ্যমিক স্কুলে শিক্ষক নিয়োগ করবে। তবে শুধু নিয়োগ প্রক্রিয়া নয়, বদল আনা হচ্ছে কাউন্সিলিংয়ের ক্ষেত্রেও অর্থাৎ শিক্ষক নিয়োগের পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হয়ে স্কুল বাছাই কীভাবে করবেন চাকরিপ্রার্থীরা, তার নিয়মেও বদল আনছে কমিশন।

চাকরির খবরঃ পাঞ্জাব ন্যাশনাল ব্যাংকে গ্রূপ-ডি কর্মী নিয়োগ

এবার থেকে পরীক্ষায় MCQ pattern প্রশ্ন থাকবে। প্রিলিমিনারি পরীক্ষা ১০০ নম্বরের হবে। প্রিলিমিনারি পরীক্ষা সমস্ত পরীক্ষার্থীদের জন্য কম্পালসারি। OMR শিটে নেওয়া হবে এই পরীক্ষা। এই পরীক্ষাতে উত্তীর্ণ হলেই সাবজেক্টের পরীক্ষা দিতে পারবেন চাকরিপ্রার্থীরা। সাবজেক্টের পরীক্ষাও হবে OMR শিটে। সেই পরীক্ষাও হবে ১০০ নম্বরের। এছাড়াও ২০২০ সালে যে আইন অনুযায়ী, স্কুল সার্ভিস কমিশন সাঁওতালি ভাষায় শিক্ষক নিয়োগ করেছিল, সেখানে ইন্টারভিউ ব্যবস্থা তুলে দেওয়া হয়েছিল। বর্তমানে সেই আইন বদল করে ইন্টারভিউ পদ্ধতি ফিরিয়ে আনা হচ্ছে। ইন্টারভিউ হবে ১০ নম্বরের। পাশাপাশি নির্বাচিত প্রার্থীর মাধ্যমিক, উচ্চমাধ্যমিক, স্নাতক স্তরের প্রাপ্ত নম্বরও দেখা হবে। তারই সঙ্গে লিখিত পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হয়ে চাকরিপ্রার্থীদের কীভাবে ক্লাস নিতে হবে, ছাত্র ছাত্রীদের তা ক্লাসরুমে দেখাতে হবে অর্থাৎ ডেমো ক্লাসের পদ্ধতিও থাকছে। তার জন্য বিশেষ নম্বর বরাদ্দ থাকবে।

এ বিষয়ে স্কুল সার্ভিস কমিশনের আধিকারিকগণ মুখ খুলেননি এখনও। কিন্তু সূত্রের খবর, আগামী কয়েকদিনের মধ্যে এ বিষয়ে চুড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে এবং তার ভিত্তিতে আইন তৈরি করে শিক্ষা দপ্তরের অনুমোদনের জন্য পাঠানো হবে। শিক্ষা দপ্তরের অনুমোদনের পরেই বিজ্ঞপ্তি আকারে পুরো বিষয়টি প্রকাশ করা হবে। খবর সূত্রে জানা যাচ্ছে, রাজ্যে মাধ্যমিক ও উচ্চমাধ্যমিক স্তরে প্রায় ২০ হাজারেরও বেশি শূন্যপদ রয়েছে। এই বিপুল শূন্যপদে নিয়োগ করতে চায় স্কুল সার্ভিস কমিশন।

চাকরির খবরঃ মাধ্যমিক পাশে পোস্ট অফিসে কর্মী নিয়োগ

প্রতিদিন চাকরি ও শিক্ষা সংক্রান্ত যেকোনো আপডেট সর্বপ্রথম পেতে আমাদের টেলিগ্রাম চ্যানেলে যুক্ত হন। টেলিগ্রাম চ্যানেলে যুক্ত হতে নীচের বোতামে ক্লিক করুন-