রাজ্যে ১৭ হাজার শিক্ষক নিয়োগ, শূন্যপদের তথ্য চাইলো হাইকোর্ট

রাজ্যে ১৭ হাজার শিক্ষক নিয়োগ

একুশে জুলাইয়ের মঞ্চ থেকে তৃণমূলনেত্রী তথা রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বার্তা দিয়েছিলেন যে, রাজ্যে ১৭ হাজার শিক্ষকের পদ তৈরি হয়ে আছে। কিন্তু হাইকোর্টে মামলা চলছে। তাই চাকরির নিয়োগ দেওয়া সম্ভব হচ্ছে না। এ প্রসঙ্গে বিস্তারিত রিপোর্ট চাইলো কোলকাতা হাইকোর্ট।

রাজ্যে শিক্ষক নিয়োগে চরম দুর্নীতির অভিযোগে মামলা চলছে হাইকোর্টে। এমনকি রাজ্যের শিক্ষা প্রতিমন্ত্রীর কন্যার বেআইনি উপায়ে প্রাপ্ত চাকরি হাইকোর্টের নির্দেশে কেড়ে নেওয়া হয়েছে। রাজ্যের গুরুত্বপূর্ণ মন্ত্রী এসএসসি মামলায় ইডির হাতে গ্রেপ্তার হয়েছেন। মামলার তদন্ত করছে সিবিআইয়ের মতো সংস্থা। এরই মাঝে মুখ্যমন্ত্রীর ভরা সভায় এমন মন্তব্যের পর স্কুলশিক্ষা দফতরকে ২৯ জুলাইয়ের মধ্যে রিপোর্ট দেওয়ার নির্দেশ দিল হাইকোর্ট।

চাকরির খবরঃ মাধ্যমিক পাশে সেরা ১০ টি চাকরি

এদিন হাইকোর্টে বিচারপতি অভিজিৎ গঙ্গোপাধ্যায় বলেন প্রিন্ট মিডিয়া, ইলেকট্রনিক মিডিয়ার মাধ্যমে, এমনকি নিজের কানেও তিনি শুনেছেন যে মুখ্যমন্ত্রী বলেছেন ১৭ হাজার শূন্যপদ প্রস্তুত থাকলেও হাইকোর্টে বিচারাধীন থাকায় প্রাথমিক, উচ্চ প্রাথমিক, উচ্চমাধ্যমিক ও মাদ্রাসায় শিক্ষক নিয়োগ করতে পারছে না মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সরকার। তাই সরকারী উকিলের কাছে বিচারপতি জানতে চেয়েছেন কোথায় কত শূন্যপদ তৈরি আছে তার বিস্তারিত তথ্য লিখিতভাবে যেন হাইকোর্টে পেশ করা হয়।

এছাড়াও বিচারপতি আরোও জানতে চান, হাইকোর্টের কোন রায়ের কারনে নিয়োগ করতে অসুবিধা হচ্ছে সেই বিষয়ে। স্কুল শিক্ষা দপ্তরকে আগামী ২৯ জুলাইয়ের মধ্যে এই দুই বিষয়ে বিস্তারিত রিপোর্ট লিখিতভাবে হাইকোর্টে জমা দিতে হবে। পাশাপাশি, বিচারব্যবস্থাকে বারবার টেনে রাজনৈতিক ময়দানে নামানোর বিষয়টির তীব্র নিন্দা করেন তিনি।

চাকরির খবরঃ মাধ্যমিক পাশে অগ্নিবীর নেভি নিয়োগ