টেট পরীক্ষার্থীদের ভবিষ্যত সুপ্রিম কোর্টের রায়ের উপর, নতুন মামলায় মন্তব্য কলকাতা হাইকোর্টের।

টেট পরীক্ষার্থীদের ভবিষ্যত সুপ্রিম কোর্টের রায়ের উপর

টেট পরীক্ষার মাধ্যমে প্রাথমিকে নিয়োগের ক্ষেত্রে পরীক্ষায় বসার একটি মাপকাঠি নিয়ে সমস্যা রয়েছে ডি.এল.এড ডিগ্রিধারী ছাত্র-ছাত্রীদের। পশ্চিমবঙ্গ প্রাথমিক শিক্ষা পর্ষদ কর্তৃক প্রকাশিত বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে যে বি.এড ডিগ্রিধারী ছাত্রছাত্রীরাও টেট পরীক্ষায় বসতে পারবে। এই মাপকাঠি নিয়ে কলকাতা হাইকোর্টের দ্বারস্থ d.el.ed ডিগ্ৰিধারী ছাত্রছাত্রীরা। এই মামলায় এদিন কলকাতা হাইকোর্ট রায় দেয়। কলকাতা হাইকোর্ট জানায়, সু্প্রিম কোর্টে একই ইস্যুতে রাজস্থানের চাকরিপ্রার্থীদের দায়ের করা মামলার নির্দেশের উপর নির্ভর করবে পশ্চিমবঙ্গে টেটে আবেদনকারী একাংশের ভবিষ্যত।

রাজ্যে শিক্ষক নিয়োগে দুর্নীতি মামলার মধ্যেই প্রাথমিক শিক্ষা পর্ষদের তরফ থেকে নতুন করে টেট পরীক্ষা নেওয়ার জন্য বিজ্ঞপ্তি জারি করা হয়েছিল। পরীক্ষা হবে আগামী ১১ ডিসেম্বর ২০২২। এই পরীক্ষার জন্য অনলাইন ফর্ম পূরণ প্রক্রিয়ায় ইতিমধ্যেই শুরু হয়ে গেছে। এরই মধ্যে এই নতুন মামলায় জেরবার প্রাথমিক শিক্ষা পর্ষদ।

Primary TET Practice Set Book

এক্ষেত্রে মামলাকারীদের দাবি, উচ্চশিক্ষার ক্ষেত্রে প্রয়োজন বি.এড ডিগ্রি এবং প্রাথমিক শিক্ষার ক্ষেত্রে ডি.এল.এড ডিগ্রি। সুতরাং বি.এড ডিগ্রিধারীরা প্রাথমিক শিক্ষক নিয়োগে অংশগ্রহণ করতেই পারে না। কলকাতা হাইকোর্টের বিচারপতি এদিন জানান, সুপ্রিম কোর্ট যা রায় দেবেন তাই শিরোধার্য। সেই সঙ্গে তার বক্তব্য, পর্ষদ যেন খুব শীঘ্রই সংশোধনী বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করে বি.এড ডিগ্রিধারীদের জানিয়ে দেয় যে, তাদের ফর্ম পূরণের বিষয়টি সম্পূর্ণরূপে নির্ভর করছে সুপ্রিম কোর্টের রায়ের উপর। পরবর্তী শুনানির তারিখ ১লা ডিসেম্বর।

শিশু বিকাশ ও পেডাগজি প্র্যাকটিস সেট
পরিবেশ বিদ্যা প্র্যাকটিস সেট
বাংলা প্র্যাকটিস সেট

অন্যদিকে প্রাথমিক শিক্ষা পর্ষদের সভাপতি গৌতম পাল এদিন বলেন ৪০-এর নিচে বয়স হলেই আবার আবেদন করতে পারবেন। এমনকি, ২০১৪ এবং ২০১৭ এর টেট পাশ চাকরিপ্রার্থীদেরও আবেদন করার আহ্বান জানান তিনি।