NEET ও JEE একটি অভিন্ন পরীক্ষার মাধ্যমে হবে, নতুন সিদ্ধান্ত ইউজিসি’র

NEET ও JEE একটি অভিন্ন পরীক্ষার মাধ্যমে হবে

সর্বভারতীয় ইঞ্জিনিয়ারিং কলেজ বিশ্ববিদ্যালয় গুলোতে ভর্তির জন্য এবং ডাক্তারি পড়ার উদ্দেশ্যে মেডিক্যাল কলেজে ভর্তির জন্য বর্তমানে ভারতের ছাত্রছাত্রীদের যথাক্রমে জে.ই.ই ( মেন & অ্যাডভান্সড) এবং নিট পরীক্ষা দিতে হয়। এক্ষেত্রে ছাত্রছাত্রীদের অনেক পরিশ্রম এবং লড়াইয়ের সম্মুখীন হতে হয়। এই বিষয়ে সরলতা আনতে চাইছে ইউজিসি। তাই ইঞ্জিনিয়ারিং এবং মেডিক্যাল পরীক্ষার এন্ট্রান্স এবার সংযুক্ত করার পথে এগোতে চাইছে ইউজিসি। এই বিষয়ে একটি পরিকল্পনা মূলক প্রস্তাব দিয়েছে ইউজিসি। বিশেষজ্ঞ মহলের অনুমান, আগামী দিনে “কমন ইউনিভার্সিটি এন্ট্রান্স টেস্ট আন্ডার গ্র্যাজুয়েট” বা “সি.ইউ.ই.টি” পরীক্ষার মধ্যেই এই সমস্ত এন্ট্রান্সকে আনা হতে পারে।

সম্প্রতি ইউজিসির চেয়ারম্যান এম. জগদেশ কুমার একটি সাক্ষাৎকারে বলেন, তিনটি এন্ট্রান্স পরীক্ষায় আলাদা আলাদা চারটি বিষয়ে অর্থাৎ পদার্থবিদ্যা, রসায়নবিদ্যা, গণিত এবং বায়োলজিতে পরীক্ষা না দিয়ে একটি সামগ্রিক পরীক্ষা দিয়েই যাতে ধাপটি পের করা যেতে পারে তেমনই ভাবনা চিন্তা আছে। সেই অনুযায়ী, পরিকল্পনা চলছে। এই বিষয়ে গুরুত্বপূর্ণ সিদ্ধান্তের জন্য শীঘ্রই দেশের বিশিষ্ট শিক্ষাবিদ এবং অধ্যাপকদের নিয়ে একটি কমিটি গঠন করা হবে।

চাকরির খবরঃ রাজ্যে নতুন করে আশা কর্মী নিয়োগ

ইঞ্জিনিয়ারিং পরীক্ষা অর্থাৎ জে.ই.ই (মেন এবং অ্যাডভান্সড) পরীক্ষাতে থাকে পদার্থ বিদ্যা, রসায়ন বিদ্যা এবং গণিত। মেডিক্যাল পরীক্ষা তথা নিট পরীক্ষায় গণিতের বদলে বায়োলজি থাকে। সেক্ষেত্রে ছাত্রছাত্রীদের উভয় পরীক্ষার স্নায়ুর চাপ বজায় রেখে প্রিপারেশন নেওয়া এবং পরীক্ষা দেওয়ার ক্ষেত্রে অনেক রকম সমস্যা দেখা যায়। তাই একটি মাত্র পরীক্ষার মাধ্যমে বিভিন্ন দিকে যাতে যাওয়া যেতে পারে সেজন্য এমন পরিকল্পনা করা হচ্ছে বলে ইউজিসি সূত্রে খবর।

এছাড়াও আরোও জানা যাচ্ছে, আগামীদিনে এই ইঞ্জিনিয়ারিং এবং মেডিক্যালে ভর্তির পরীক্ষাগুলো মাল্টিপল চয়েস পদ্ধতিতে এবং কম্পিউটারের মাধ্যমে হবে। কারণ বর্তমানের ও.এম.আর পদ্ধতিতে পরীক্ষা নেওয়ায় মূল্যায়নের যথার্থতা নিয়ে বিভিন্ন রকম সমস্যা হচ্ছে।