Primary TET: অভিযোগ এলে মামলা চলতে পারে, কিন্তু তাতে বন্ধ হবে না নিয়োগ প্রক্রিয়া! জানালেন বিচারপতি গঙ্গোপাধ্যায়

রাজ্যে প্রাথমিকে শিক্ষক নিয়োগ নিয়ে টালবাহানা অব্যাহত। টেট পরীক্ষা এবং নিয়োগ সংক্রান্ত ইস্যু নিয়ে বারবার আদালতে দ্বারস্থ হয়েছেন চাকরিপ্রার্থীরা। এহেন পরিস্থিতিতে প্রাথমিকের একটি মামলা চলাকালীন বিচারপতি অভিজিৎ গঙ্গোপাধ্যায় জানালেন, প্রাথমিকে নিয়োগ প্রক্রিয়ায় তিনি কোন রকম বাধা হয়ে দাঁড়াবেন না। কোনও গুরুতর অভিযোগ সামনে এলে তা নিয়ে মামলা চলতে পারে, তবে তাতে বন্ধ হবে না নিয়োগ প্রক্রিয়া।

বিচারপতি অভিজিৎ গঙ্গোপাধ্যায় বরাবরই চাকরিপ্রার্থীদের পাশে দাঁড়িয়েছেন। বিভিন্ন মামলার শুনানিতে তিনি যে রায় দিয়েছেন তা চাকরিপ্রার্থীদের স্বার্থ চিন্তা করেই। এদিন শুক্রবার তিনি জানান, “আসন্ন শিক্ষক নিয়োগ প্রক্রিয়ায় কোনো ভাবে বাধা হয়ে দাঁড়াবো না, হস্তক্ষেপও করবো না”। বিচারপতি জানান, যদি কোনও অভিযোগ সামনে আসে, তবে তার বিচার চলবে ঠিকই কিন্তু তার জন্য নিয়োগ প্রক্রিয়া কোনওভাবে প্রভাবিত হবে না। তিনি এও বলেন যে, কোনোভাবেই নিয়োগ প্রক্রিয়া বন্ধ করার পক্ষে তিনি নেই। তাঁর কথায়, চাকরিপ্রার্থীদের চাকরি দেওয়াটা জরুরি কারণ এটা তাঁদের চাওয়া পাওয়ার বিষয়। এবং তিনি চান রাজ্যে স্বচ্ছ এবং নিরপক্ষ পদ্ধতিতে নিয়োগ প্রক্রিয়া চলুক। তবে তিনি একথাও জানান, কোনোও গুরুতর অভিযোগ সামনে এলে তা এড়িয়ে যাওয়াও সম্ভব নয় তার পক্ষে।

আরও পড়ুনঃ
প্রাইমারি টেট পেডাগজি প্র্যাক্টিস সেট
প্রাইমারি টেট পরিবেশ বিদ্যা প্র্যাক্টিস সেট

রাজ্যে শিক্ষক নিয়োগ নিয়ে যে দুর্নীতি চলছে, তাতে বারবার পদক্ষেপ গ্রহণ করতে হয়েছে আদালতকে। এবং শিক্ষক নিয়োগের এই নতুন প্রক্রিয়াও আশঙ্কার সৃষ্টি করেছে চাকরিপ্রার্থীদের মধ্যে। চাকরির দাবিতে ধর্ণামঞ্চে রয়েছেন বহু চাকরিপ্রার্থী।এরমধ্যেই টেটে ভুল প্রশ্ন সহ একাধিক মামলা আদালতে বিচারাধীন। সম্প্রতি বিচারপতি ২১ জন চাকরিপ্রার্থীকে প্রাথমিকের নিয়োগে অংশগ্রহণের সুযোগ করে দেন। তবে যে সমস্ত মামলা বর্তমানে আদালতে বিচারাধীন রয়েছে তার শুনানি চলবে। কিন্তু এসবের জন্য যে নিয়োগ প্রক্রিয়া কোনওভাবে বাধাপ্রাপ্ত হবে না, সে বিষয়েই এদিন আশ্বস্ত করলেন বিচারপতি গঙ্গোপাধ্যায়।