পিছু হটলো স্কুল সার্ভিস কমিশন! প্রশ্নের মুখে বাতিল অতিরিক্ত শূন্যপদের আবেদন

চাকরি না করেও অযোগ্যদের তালিকায় নাম

রাজ্য স্কুল সার্ভিস কমিশনের তরফে বদলানো হলো সিদ্ধান্ত। আদালতের প্রশ্নের মুখে উচ্চ প্রাথমিকের অতিরিক্ত শূন্যপদে বাতিল হওয়া প্রার্থীদের নিয়োগের জন্য যে আবেদন করা হয়েছিল কমিশনের তরফে সেই আবেদন এদিন প্রত্যাহার করে নিল স্কুল সার্ভিস কমিশন।

রাজ্যে উচ্চ প্রাথমিকের নিয়োগ দুর্নীতি নিয়ে জলঘোলা অব্যাহত। আদালতে চলছে একাধিক মামলা। বিচারপতির নির্দেশে শুরু হয়েছে সিবিআই তদন্তও। বহু ক্ষেত্রে প্রশ্নের মুখে অবস্থান বদলেছে কমিশন। বিচারপতির নির্দেশে গৃহীত হয়েছে পদক্ষেপও। তবু দুর্নীতির আঁচ রয়ে গিয়েছে নিয়োগ প্রক্রিয়ায়। একবার ফের প্রশ্নের মুখে পিছু হটলো স্কুল সার্ভিস কমিশন।

আরও পড়ুনঃ পর্ষদের অফিসে ডাক পেলেন 92 জন চাকরিপ্রার্থী

সম্প্রতি উচ্চ প্রাথমিকের অতিরিক্ত শূন্যপদে বাতিল হওয়া প্রার্থীদের নিয়োগের জন্য আবেদন করা হয় কমিশনের তরফে। তবে কমিশনের এই সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে গিয়ে রাজ্য জানায়, কমিশনের এহেন সিদ্ধান্তের পরিপ্রেক্ষিতে সমর্থন নেই রাজ্যের। ঘটনাটি পর্যালোচনা করে বিচারপতি জানতে চান কমিশনের বিরুদ্ধে তবে যে পদক্ষেপ গৃহীত হয়েছে, তা যেন আজই প্রকাশ করা হয়। সেইমতো এদিন বিচারপতির কাছে কমিশনের আইনজীবী জানান, কমিশনের কাছে লিখিত নির্দেশিকা এসেছে। এবং সে অনুযায়ী রাজ্যের অতিরিক্ত শূন্যপদে বাতিল হওয়া প্রার্থীদের নিয়োগের জন্য কমিশনের তরফে যে আবেদন করা হয়েছিল, তা এদিন প্রত্যাহার করে নেওয়া হচ্ছে।

প্রসঙ্গত, উচ্চ প্রাথমিকের নিয়োগ দুর্নীতি নিয়ে সিবিআই তদন্তের নির্দেশ দেন বিচারপতি। সম্প্রতি স্কুল সার্ভিস কমিশনের তরফে স্বীকারোক্তি করা হয় প্রায় ১৫০ জন প্রার্থী সাদা খাতা জমা দেওয়ার পরেও চাকরি পেয়েছেন। এহেন চাঞ্চল্যকর তথ্য সামনে আসার পর স্বাভাবিকভাবেই জল্পনা ছড়িয়েছে বিভিন্ন মহলে। একই সাথে উচ্চ প্রাথমিকের দুর্নীতি তদন্তে সিবিআই এর ভূমিকা নিয়েও উঠছে নানা প্রশ্ন।