রাজ্যে ৪ হাজার পুলিশ ড্রাইভার পদ ফাঁকা, নিয়োগের দেখা নেই

রাজ্যে ৪ হাজার পুলিশ ড্রাইভার পদ ফাঁকা

বেকারত্বের হার দিন দিন বেড়েই চলেছে। রাজ্যে চাকরি নেই। শূন্যপদ ফাঁকা কিন্তু নিয়োগ করছে না দপ্তর। রাজ্যের থানা এবং বিভিন্ন পুলিশ ইউনিট গুলিতে পুলিশ ড্রাইভার পদ শূন্য হয়ে গেছে প্রায় ৮৩ শতাংশের কাছাকাছি। সুতরাং গোটা রাজ্যে পুলিশ ড্রাইভার পদে মাত্র ১৭ শতাংশ কর্মী কর্মরত অবস্থায় রয়েছেন। কিন্তু কেন এই দুরাবস্থা?

জানা গেছে, দীর্ঘ ৭ বছর ধরে এরাজ্যের পুলিশ স্টেশন গুলিতে নিয়োগ নেই ড্রাইভারি পদে। ফলে লাফিয়ে লাফিয়ে বাড়ছে শূন্য পদের সংখ্যা। যার সংখ্যা প্রায় ৪ হাজার ছুঁই ছুঁই। ফলে প্রবল সমস্যার সম্মুখীন হতে হচ্ছে থানা গুলিকে। সূত্রের খবর, ২০১৪ সালের পর থানা গুলিতে ড্রাইভার পদে নিয়োগ হয়নি। সব জেলা মিলিয়ে শূন্যপদের সংখ্যা প্রায় ৩৯৬৬। পশ্চিমবঙ্গ পুলিশের ড্রাইভার পদে আবেদন করার জন্য যোগ্যতা লাগে অন্তত অষ্টম শ্রেণী পাশ। সঙ্গে একটি বৈধ ড্রাইভিং লাইসেন্স থাকতে হয়। এই যোগ্যতামানের প্রার্থীরা অপেক্ষা করে আছেন ড্রাইভার পদে আবেদন করার জন্য। কিন্তু পুলিশ ড্রাইভার পদে কবে নিয়োগ করা হবে তা এখনও অজানা।

বাম আমলে থানা গুলির দুর্দশা থাকলেও বর্তমানে রাজ্য জুড়ে থানা গুলির যথেষ্ট উন্নতি হয়েছে। থানা গুলির আগের পরিকাঠামো নতুন করে সাজানো হয়েছে। ‌এলাকায় টহলদারি ও দ্রুত ঘটনাস্থলে পৌঁছানোর জন্য থানাগুলিতে বাড়ানো হয়েছে গাড়ির সংখ্যাও। কিন্তু সেই গাড়ি চালানোর ড্রাইভারের দেখা নেই। ড্রাইভিং লাইসেন্স থাকা কর্মরত কনস্টেবল দের গাড়ি চালানোর কাজ করাতে চাইছে শীর্ষমহল। আধিকারিকদের সাথে বৈঠকে এই প্রস্তাব দিয়েছেন ডিজি মনোজ মালব্য। এই প্রস্তাব নিয়ে প্রশ্ন তুলেছেন বিশেষজ্ঞ মহল। তাঁদের দাবি, এই প্রস্তাব সমাধানের বদলে আরও সমস্যা ডেকে আনবে। কারণ কনস্টেবল কর্মীরা ড্রাইভারের কাজ করলে কনস্টেবলদের মূল কাজে ভাটা পড়বে। এই ৩৯৬৬ শূন্যপদে পুলিশ পুলিশ ড্রাইভার কবে নিয়োগ করা হবে তা সময় বলবে। তবে এই নিয়োগের বিজ্ঞপ্তি প্রকাশিত হলে ExamBangla.com -এর পাতায় সর্বপ্রথম প্রকাশিত হবে।