উৎকর্ষ বাংলার চাকরি! সরকারের দেওয়া নিয়োগপত্র ভুয়ো?

উৎকর্ষ বাংলার চাকরি
উৎকর্ষ বাংলার নামে ভুয়ো নিয়োগপত্র পেয়ে বিভ্রান্তিতে রাজ্যের চাকরীপ্রার্থীদের একাংশ। কিছুদিন আগেই মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় কলকাতার নেতাজী ইন্ডোর স্টেডিয়ামে বিপুল সংখ্যক ভোকেশনাল ট্রেনিংপ্রাপ্ত চাকরীপ্রার্থীদের হাতে নিয়োগপত্র তুলে দেন।  একই সঙ্গে রাজ্যের বিভিন্ন জেলা স্তরেও ভোকেশনাল ট্রেনিংপ্রাপ্ত চাকরীপ্রার্থীদের নিয়োগপত্র তুলে দেওয়া হয়। ভুয়ো নিয়োগপত্রের ঘটনাটি ঘটেছে হুগলি জেলায়।
এদিন হুগলি ইনস্টিটিউট অফ টেকনোলজি কলেজে এসে বহু চাকরীপ্রার্থী নিয়োগপত্র নিয়ে যায়। চিঠিতে স্পষ্ট লেখা গুজরাটের মারুতি সুজুকি কোম্পানিতে দুই বছরের আইটিআই প্রোগ্ৰামে ভেহিক্যাল টেকনিক্যাল এর পদের জন্য প্রশিক্ষণ দেওয়া হবে। এই প্রশিক্ষণ চলাকালীন ১১ হাজার টাকা ভাতা পাওয়া যাবে। এবং এই সময়ের সমস্ত ফী বহন করবে কোম্পানি।
এই চিঠিতে সেন্টার ম্যানেজার হিসেবে ভেদপ্রকাশ সিং নামে এক ব্যক্তির নাম এবং ফোন নম্বর রয়েছে। এই নম্বরেই যোগাযোগ করে ১১ থেকে ১৪ সেপ্টেম্বরের মধ্যে গুজরাটের হেড অফিসে কাজে যোগ দিতে হবে। কিন্তু ভেদপ্রকাশ সিংয়ের সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে তিনি ফোনে স্পষ্ট বার্তা দেন এই নিয়োগপত্র ভুয়ো। তবে, একথা সত্যি তাঁর কোম্পানি ফানফাস্ট , মারুতি সুজুকির সঙ্গে চুক্তি করে যুবক-যুবতীদের ট্রেনিং দেন। কিন্তু তাদের নিয়োগের প্রক্রিয়া সম্পূর্ণ আলাদা। তাছাড়া তাদের নিয়োগপত্র রঙিন হয়, যেখানে পশ্চিমবঙ্গের কর্মীপ্রার্থীদের দেওয়া নিয়োগপত্র সাদা। ফানফাস্টের এক উচ্চপদস্থ কর্মকর্তা জানান,তারা বিষয়টি সম্পর্কে শুনেছেন। কিন্তু এও স্পষ্ট করেন যে, পশ্চিমবঙ্গের সরকারের সঙ্গে কোনো সম্পর্ক নেই ফানফাস্ট কোম্পানির অর্থাৎ এই নিয়োগপত্র সম্পূর্ণরূপে ফেক। হুগলীর ডি.এম এবং রাজ্যের সরকারের উচ্চপদস্থ আধিকারিকদের মেইল করে বিষয়টি জানানো হয়েছে। সরকারের কোনোরূপ প্রতিক্রিয়া মেলেনি।