প্রকাশ পেল ১৮৩ জন ‘ভুয়ো’ শিক্ষকদের তালিকা, শীঘ্রই শুরু হতে পারে চাকরি বাতিল প্রক্রিয়া!

প্রকাশ পেল ১৮৩ জন 'ভুয়ো' শিক্ষকদের তালিকা

হাইকোর্টের বিচারপতি অভিজিৎ গঙ্গোপাধ্যায়ের নির্দেশে প্রকাশ পেল উচ্চপ্রাথমিকের নবম, দশম শ্রেণীর ভুয়ো শিক্ষকদের তালিকা। এদিন বৃহস্পতিবার কমিশনের,অফিসিয়াল ওয়েবসাইটে প্রকাশ পেয়েছে তালিকাটি। এর আগেই সিবিআই তদন্তে অবৈধ উপায়ে নিযুক্ত প্রার্থীদের হদিশ মেলে। সেইমতো বিচারপতি গঙ্গোপাধ্যায় এসএসসিকে নির্দেশ দেয় চব্বিশ ঘণ্টার মধ্যে এই প্রার্থীদের নামের তালিকা প্রকাশ করতে। সেই মতো এদিন প্রকাশ পেল ১৮৩ জন ভুয়ো শিক্ষক-শিক্ষিকাদের নাম, রোল নম্বর, বিষয় সহ পূর্ণাঙ্গ তালিকা। সূত্রের খবর, শীঘ্রই শুরু হতে পারে চাকরি বাতিল প্রক্রিয়া।

উচ্চ প্রাথমিকের নিয়োগ দুর্নীতি নিয়ে জল্পনার শেষ নেই। দিন এগোতেই প্রকাশ পাচ্ছে চাঞ্চল্যকর সব তথ্য। আদালতে চলছে মামলা। কড়া হাতে নির্দেশ দিচ্ছেন বিচারপতি গঙ্গোপাধ্যায়। এর আগেই এসএসসি দুর্নীতিতে সিবিআই তদন্তের নির্দেশ দেন বিচারপতি। সেইমতো চলে তদন্ত প্রক্রিয়া। তদন্তে সামনে আসে বেশ কিছু দুর্নীতিগ্রস্ত ‘ওএমআর শিট’। যেখানে প্রার্থীদের নম্বর ‘পাঁচ’, ‘দুই’, কারোর আবার ‘এক’! এই সমস্ত প্রার্থীদেরই নম্বর তালিকার প্রাপ্ত নম্বর কোথাও ‘৫৩’ তো কোথাও ‘৫৫’ অর্থাৎ উত্তীর্ণ হয়েছেন তাঁরা! এদেরই নাম আবার এসএসসির সুপারিশপত্রে! এখান থেকে সিবিআইয়ের দাবি, ওএমআর শিটে দুর্নীতি হয়েছে বিস্তর।

আরও পড়ুনঃ চাকরির পরীক্ষা নিয়ে ক্ষোভ উগরে দিলেন কোচবিহারের মেয়ে

এই ধরণের কিছু শিট ইতিমধ্যেই আদালতে জমা দিয়েছে সিবিআই। পরবর্তীতে স্কুল সার্ভিস কমিশনও দুর্নীতির পক্ষে স্বীকারোক্তি দেয়। এছাড়াও এর আগেই জানানো হয়েছিল, বেআইনিভাবে চাকরি প্রাপকরা যদি স্বেচ্ছায় পদত্যাগ না করেন তবে তাঁদের বিরুদ্ধে কড়া পদক্ষেপ নেবে আদালত। সূত্রের খবর, এই কড়া পদক্ষেপের প্রথম ধাপেই বিচারপতি গঙ্গোপাধ্যায় এসএসসির উদ্দেশ্য নির্দেশ দেন, চব্বিশ ঘণ্টার মধ্যে ১৮৩ জন ভুয়ো শিক্ষক-শিক্ষিকাদের তালিকা প্রকাশ করতে। সেইমতো এদিন অফিসিয়াল ওয়েবসাইটে তালিকাটির প্রকাশ করে কমিশন।

FB Join

২০১৬ সালে এসএসসির নবম দশম শ্রেণীর পরীক্ষায় ১৮৩ জন কে বেআইনিভাবে নিয়োগ করা হয়। এদিন প্রকাশ পাওয়া তালিকায় রয়েছেন ২১ জন বাংলা, ৫৭ জন ইংরেজি, ১৭ জন ইতিহাস, ২২ জন জীবন বিজ্ঞান, ১৮ জন অঙ্ক, ৩০ জন ভূগোল ও ১৮ জন ভৌত বিজ্ঞানের শিক্ষক-শিক্ষিকারা। যদিও সিবিআইয়ের দাবি ছিল অযোগ্য প্রার্থীদের সংখ্যা প্রায় ৯৫২ জন, তবে আদালতে এসএসসি ১৮৩ জনের ভুয়ো নিয়োগের বিষয়টি স্বীকার করে নেয়। এরপরেই প্রশ্ন ওঠে তবে কি বেশ কিছু অযোগ্য প্রার্থীদের আড়াল করতে চাইছে কমিশন? বিচারপতি বলেন, কমিশনের উচিত দুর্নীতির বিরুদ্ধে গিয়ে আদালতকে সাহায্য করা। সেইমতো বিচারপতি গঙ্গোপাধ্যায় এই ১৮৩ জন প্রার্থীর তালিকা প্রকাশের নির্দেশ দেন। এদিন কমিশনের ওয়েবসাইটে প্রকাশ পেল সেই তালিকা।

List Download: Click Here