পুজোর আগেই শিক্ষক নিয়োগের বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ, নিয়োগ প্রক্রিয়ায় অমূল পরিবর্তন

পুজোর আগেই শিক্ষক নিয়োগের বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ

বহু প্রতীক্ষার পর প্রকাশিত হতে চলেছে শিক্ষক নিয়োগের বিজ্ঞপ্তি। প্রায় ৭ বছর পর শিক্ষক নিয়োগ করতে চলেছে পশ্চিমবঙ্গ স্কুল সার্ভিস কমিশন। রাজ্যে পূজার আগেই ২১ হাজার শূন্যপদে শিক্ষক নিয়োগের কথা ঘোষণা করেছেন শিক্ষামন্ত্রী। এদিন ১ আগস্ট সোমবার দপ্তরের উচ্চপদস্থ আধিকারিকদের নিয়ে একটি বৈঠক করে আশ্বাস দিয়েছেন তিনি। নিয়োগ প্রক্রিয়ায় কোন আইনি জটিলতা না থাকার কারণে সেগুলোতে নিয়োগ করা হবে বলে জানিয়েছেন শিক্ষামন্ত্রী ব্রাত্য বসু।

নবম-দশমে ১৩ হাজার ৮৪২ টি, একাদশ- দ্বাদশে ৫ হাজার ৫২৭ টি ও প্রধান শিক্ষক পদে ২ হাজার ৩২৫ টি শূন্যপদ রয়েছে। সব মিলিয়ে প্রায় ২১ হাজারের বেশি শূন্যপদ। এই শিক্ষক নিয়োগ বিধিতে বড়সড়ক পরিবর্তন আসছে বলেও জানান তিনি। নবম থেকে দ্বাদশ পর্যন্ত স্কুলে শিক্ষক নিয়োগের বেলায় শিক্ষাগত যোগ্যতা, প্রার্থী বাছাই পদ্ধতিতে কেমন পরিবর্তন আসতে চলেছে তার বিস্তারিত তথ্য জেনে নিন আজকের এই প্রতিবেদনে।

চাকরির খবরঃ কলেজে নন-টিচিং স্টাফ নিয়োগ  

নবম দশম শ্রেণীর শিক্ষক শিক্ষিকার ক্ষেত্রে- যেকোনো শাখায় গ্র্যাজুয়েট/ অনার্স গ্রাজুয়েট/ পোস্ট গ্র্যাজুয়েটে অত্যন্ত ৫০ শতাংশ নম্বর ও SC/ ST/ OBC/ PH প্রার্থীদের ক্ষেত্রে ৪৫ শতাংশ নম্বর থাকলে আবেদন করতে পারবেন। এছাড়াও NCTE -এর স্বীকৃত শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান B.Ed কোর্স করা থাকতে হবে।
একাদশ দ্বাদশ শ্রেণীর শিক্ষক শিক্ষিকার ক্ষেত্রে- যেকোনো শাখায় পোস্ট গ্র্যাজুয়েটে অত্যন্ত ৫০ শতাংশ নম্বর ও SC/ ST/ OBC/ PH প্রার্থীদের ক্ষেত্রে ৪৫ শতাংশ নম্বর থাকলে আবেদন করতে পারবেন। এছাড়াও NCTE -এর স্বীকৃত শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান B.Ed কোর্স করা থাকতে হবে।
বয়স- প্রার্থীর বয়স ২১ বছর থেকে ৪০ বছরের মধ্যে হতে হবে। সরকারি নিয়ম অনুযায়ী সংশ্লিষ্ট শ্রেনীর প্রার্থীরা বয়সের ছাড় পাবেন।

পরিক্ষা পদ্ধতি- লিখিত পরীক্ষা দিতে হবে ও.এম.আর শীটে। এই ও.এম.আর শীট হবে ‘নন কার্বন ডুব্লিকেট’। উত্তরপত্র জমা দিয়ে কার্বন কপিটি নিজের কাছে রাখতে পারবেন পরীক্ষার্থীরা। মডেল উত্তরপত্র কমিশনের ওয়েব সাইটে আপলোড করা হবে। নিজের কাছে রাখা কার্বন কপির সঙ্গে মডেল উত্তরপত্রটি মেলাতে হবে। কোন প্রশ্নের উত্তর নিয়ে সংশয় বা আপত্তি দেখা দিলে তা নির্দিষ্ট সময়ের মধ্যে কমিশনকে জানাতে পারবেন।

চাকরির খবরঃ পাঞ্জাব ন্যাশনাল বাঙ্কে কর্মী নিয়োগ 

প্রার্থী বাছাই- প্রিলিমিনারি পরীক্ষা ও বিষয়ভিত্তিক পরীক্ষা মাধ্যমে প্রার্থী বাছাই করা হবে। দুই ক্ষেত্রেই প্রশ্ন হবে MCQ টাইপের। এছাড়াও ইন্টারভিউ ১০ নম্বরের। ইন্টারভিউতে সফল হলে স্কুল বাছাইয়ের জন্য কাউন্সেলিংয়ে ডাকা হবে। তবে নিয়োগ পদ্ধতি নিয়ে এখনও অফিসিয়াল ভাবে কোন বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করা হয়নি পশ্চিমবঙ্গ স্কুল সার্ভিস কমিশনের তরফ থেকে। বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ হলে সর্বপ্রথম ExamBangla.com -এর পাতায় প্রকাশ করা হবে।