রাজ্যে ৮ হাজার শূন্যপদে কনস্টেবল ও লেডি কনস্টেবল নিয়োগ

রাজ্য পুলিশের কনস্টেবল পদে এখন লোক নেই বললেই চলে। প্রতিবছর একটা ভালো সংখ্যক কর্মীরা অবসর নেন। তাই বিভিন্ন থানার কনস্টেবলের পদগুলি ফাঁকা রয়েছে। তাই থানাগুলিতে দৈনন্দিন কাজ চালাতে সমস্যা হচ্ছে। কনস্টেবল না থাকায় গোটা জেলা জুড়ে আইন-শৃঙ্খলা রক্ষা নিয়ে সমস্যায় পড়তে হচ্ছে জেলার পুলিশ প্রশাসনকে।


মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের আমলে রাজ্যে অনেকগুলি নতুন জেলা গঠন হলেও নতুন করে নিয়োগ হয়নি। তাই প্রচুর পদ ফাঁকা রয়েছে। এই বিষয়টি সুপ্রিম কোর্টে ওঠে। সুপ্রিম কোর্ট রাজ্যকে শূন্যপদ পূরণের দ্রুত নির্দেশ দেয়। রাজ্যের পুলিশ বিভাগে সমস্ত শূন্যপদ পূরণ করার জন্য নির্দিষ্ট সময় বেঁধে দেয় সুপ্রিম কোর্ট। আর সেই শূন্যপদ পূরণের লক্ষ্যে মরিয়া রাজ্য সরকার। বর্তমানে রাজ্যের পুলিশ বিভাগে মোট 24000 শূন্য পদ ফাঁকা রয়েছে বলে জানানো হয়েছে রাজ্য সরকারের তরফে। যার মধ্যে 8000 পদ খালি রয়েছে কনস্টেবল পদের জন্য। রাজ্য সরকার চাইছে 2021 সালের বিধানসভা ভোটের আগে সমস্ত নিয়োগ প্রক্রিয়া সেরে ফেলতে। তাই প্রশাসনিক কর্তারা চাইছেন 2020 সালের জানুয়ারি মাসেই এই নিয়োগের বিজ্ঞপ্তি জারি করতে।
 
West Bengal Police Constable & Lady Constable Recruitment 2020 
পদের নাম- কনস্টেবল ও লেডি কনস্টেবল
 

শিক্ষাগত যোগ্যতা- মাধ্যমিক পাশ বা সমতুল।
 
বয়সসীমা- 18 থেকে 27 বছরের মধ্যে। SC/ST প্রার্থীরা 5 বছর এবং OBC প্রার্থীরা 3 বছরের বয়সে ছাড় পাবেন।
 
বেতনক্রম- Pay Scale Rs. 5,400/- থেকে 25,200/- সঙ্গে 2,600/- গ্রেড পে।
শারীরিক যোগ্যতা (কনস্টেবল)- উচ্চতা: 167 সেমি, ওজন: 57 কেজি‌, ছাতি: 78 সেমি (5 সেমি ফোলাতে হবে)।
গোর্খা, গাড়ওয়ালিস, রাজবংশী, ST প্রার্থীদের ক্ষেত্রে উচ্চতা: 160 সেমি, ওজন: 53 কেজি, ছাতি: 76 সেমি (5 সেমি ফোলাতে হবে)।
 
Physical Efficiency Test (PET)- 1600 মিটার দৌড়াতে হবে 6 মিনিট 30 সেকেন্ডের মধ্যে।
শারীরিক যোগ্যতা (লেডি কনস্টেবল)- উচ্চতা: 160 সেমি, ওজন: 49 কেজি‌।
গোর্খা, গাড়ওয়ালিস, রাজবংশী, ST প্রার্থীদের ক্ষেত্রে উচ্চতা: 152 সেমি, ওজন: 45 কেজি।
 
Physical Efficiency Test (PET)- 800 মিটার দৌড়াতে হবে 4 মিনিটের মধ্যে।
নিয়োগ পদ্ধতি- প্রথমে প্রিলিমিনারি পরীক্ষা (100 Marks) PHYSICAL MEASUREMENT TEST (PMT), PHYSICAL EFFICIENCY TEST (PET), Main Examination (85 Marks), শেষে থাকবে ইন্টারভিউ (15 Marks)।
পরীক্ষা পদ্ধতি-
Preliminary Written Test (Full Marks: 100)- পরীক্ষা হবে মোট 100 নম্বরের। মাল্টিপল চয়েস প্রশ্ন থাকবে। সময়সীমা 1 ঘন্টা। প্রশ্নপত্র বাংলা ভাষায় হবে। নেগেটিভ মার্কিং থাকবে প্রতিটি ভুল উত্তরের জন্য 1/4 নম্বর।

General Awareness and General Knowledge- 50 Marks.
Elementary Mathematics (Madhyamik Standard)- 30 Marks.
Reasoning- 20 Marks.
Final written examination- যারা PMT & PET পাশ করবেন, শুধু তারাই ফাইনাল লিখিত পরীক্ষা দিতে পারবেন। লিখিত পরীক্ষা হবে 85 নম্বরের। সময়সীমা 1 ঘন্টা। নেগেটিভ মার্কিং থাকবে 1/4 নম্বর।
General Awareness and General Knowledge- 25 Marks.
English- 25 Marks.
Elementary Mathematics (Madhyamik Standard)- 20 Marks.
Reasoning and Logical Analysis- 15 Marks.
আরও পড়ুন -  রাজ্যের স্টাফ সিলেকশন কমিশনের পুনর্গঠন থমকে গেল, তাহলে গ্রূপ-ডি নিয়োগ কি PSC- র হাতে ?