দেশের মুকুটে নতুন পালক! বৈজ্ঞানিক গবেষণাপত্র প্রকাশে সারা বিশ্বে তৃতীয় স্থান অধিকার করলো ভারত

দেশের মুকুটে নতুন পালক

বিজ্ঞান ও প্রযুক্তিভিত্তিক গবেষণাপত্র প্রকাশে নয়া নজির গড়লো ভারত। সম্প্রতি আমেরিকার ন্যাশনাল সায়েন্স ফাউন্ডেশন কর্তৃক প্রকাশিত রিপোর্ট অনুসারে সারা বিশ্বে বৈজ্ঞানিক রিসার্চ পেপার প্রকাশনায় তৃতীয় স্থান অধিকার করেছে ভারত। এর আগে ২০১০ সালে প্রকাশিত রিপোর্ট অনুসারে যেখানে ভারতের স্থান ছিল সাত নম্বরে সেখান থেকে চার ধাপ এগিয়ে বর্তমানে তৃতীয় স্থানে রয়েছে ভারতবর্ষ।

আমেরিকার ন্যাশনাল সায়েন্স ফাউন্ডেশন সারা বিশ্বের বিজ্ঞান ও প্রযুক্তির ওপর ভিত্তি করে রিপোর্ট পেশ করে। সেই রিপোর্ট অনুসারে জানা যাচ্ছে ভারতে গবেষণাপত্রের প্রকাশ বছর এগোতে ক্রমশ বৃদ্ধি পেয়েছে। দেখা যাচ্ছে, যেখানে ২০১০ সালে ভারতে বিজ্ঞান বিষয়ক গবেষণাপত্র প্রকাশের সংখ্যা ৬০৫৫৫ টি সেখানে ২০২০ সালে এসে তা বৃদ্ধি পেয়ে হয়েছে ১৪৯২১৩ টি। অতএব বোঝাই যাচ্ছে সময় এগোতে রিসার্চ পেপারের প্রকাশ ক্রমশ বৃদ্ধি পেয়েছে দেশে। এ প্রসঙ্গে বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি মন্ত্রী জিতেন্দ্র সিং জানিয়েছেন, গত কয়েক বছরে বিজ্ঞান ও প্রযুক্তিগত উন্নয়নে ভারতের অগ্রগতি হয়েছে। বেড়েছে গবেষণার হারও। তারই প্রভাব পড়েছে গবেষণাপত্রের উন্নয়নে।

FB Join

আরও পড়ুনঃ ২০ শিক্ষকের থেকে তথ্য চেয়ে তালিকা প্রকাশ করলো এসএসসি!

এই উন্নয়নের অন্যতম কারণ হিসেবে বর্তমান কেন্দ্রীয় সরকারের ভূমিকাকে স্বীকার করেছেন তিনি। তাঁর কথায়, বিগত কয়েক বছরে কেন্দ্রের তরফে বিজ্ঞান ও প্রযুক্তির উন্নয়নে বেশ কিছু পদক্ষেপ গ্রহণ করা হয়েছে। বিজ্ঞানের খাতে জমা পড়া বরাদ্দ অর্থের পরিমাণও বেড়েছে। এছাড়া বিভিন্ন কর্পোরেট সেক্টরের তরফে বিজ্ঞান ও প্রযুক্তির বিভিন্ন ক্ষেত্রে ব্যবসার পরিমাণ বৃদ্ধিতেও ব্যবস্থা গৃহীত হয়েছে। আগের চাইতে গবেষণায় উৎসাহ বৃদ্ধি পেয়েছে। তার প্রতিফলন পড়েছে গবেষণাপত্রের প্রকাশ বৃদ্ধিতে।

সম্প্রতি আমেরিকার ন্যাশনাল সায়েন্স ফাউন্ডেশনের তরফে প্রকাশিত রিপোর্ট অনুসারে লক্ষ্য করা যাচ্ছে, ভারতে ২০১০ সালের পর থেকে বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি ভিত্তিক গবেষণাপত্র প্রকাশের পরিমাণ যথেষ্টই বৃদ্ধি পেয়েছে। যেখানে ২০১০ সালে ভারতের স্থান ছিল সপ্তম স্থানে সেখানে বর্তমানে ভারত সারা বিশ্বে তৃতীয় স্থানে রয়েছে। যা ভারতের বিজ্ঞান ও প্রযুক্তির অগ্রগতিতে অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ দিক বলে মনে করা হচ্ছে।