WBCS পরীক্ষায় বাংলা বাধ্যতামূলক! সিদ্ধান্ত নিতে চলেছে রাজ্য সরকার

WBCS পরীক্ষায় বাংলা বাধ্যতামূলক!

রাজ্যের সর্বোচ্চস্তরে আধিকারিক নিয়োগের পরীক্ষা ডব্লিউবিসিএস (WBCS)। ডব্লিউবিসিএস পরীক্ষা প্রক্রিয়া West Bengal Public Service Commission দ্বারা পরিচালিত হয়। এই পরীক্ষার মূলত তিনটি ধাপ। প্রিলিমিনারি, মেনস এবং ইন্টারভিউ বা Personality Test. এই পরীক্ষায় বাংলা ভাষা বাধ্যতামূলক করার সিদ্ধান্ত নিতে চলছে রাজ্য সরকার।

ডব্লিউবিসিএস (WBCS) পরীক্ষায় কম্পালসারি পেপারের ক্ষেত্রে, বাংলা ভাষায় একটি পেপার বাধ্যতামূলক করার চিন্তা ভাবনা চলছে বলে রাজ্য প্রশাসন সূত্রে খবর। বর্তমানে ডব্লিউবিসিএস -এ বাংলা, হিন্দি, নেপালী, সাঁওতালী এবং উর্দু – এই পাঁচটি বিষয়ের মধ্যে যেকোনো একটিতে প্রথম কম্পালসারি পেপার দেওয়া যায়। কিন্তু দেশের অন্যান্য রাজ্যে, সংশ্লিষ্ট রাজ্যের সিভিল সার্ভিসে ঐ রাজ্যের ভাষা নিয়ে একটি পেপার দেওয়া বাধ্যতামূলক। সেক্ষেত্রে সংশ্লিষ্ট রাজ্যের চাকরিপ্রার্থীরা নিজের মাতৃভাষায় পরীক্ষার দেওয়ার সুযোগ পেয়ে প্রতিযোগিতার দৌড়ে এগিয়ে থাকে। কিন্তু এতদিন পশ্চিমবঙ্গের চাকরিপ্রার্থীদের ক্ষেত্রে এই সুযোগটা ছিল না।

চাকরির খবরঃ মাধ্যমিক পাশে কলেজে ক্লার্ক পদে নিয়োগ

পশ্চিমবঙ্গের সিভিল সার্ভিস পরীক্ষায় মাতৃভাষা বাধ্যতামূলক না থাকায় বাইরের রাজ্য থেকে বহু ছেলে- মেয়ে ডব্লিউবিসিএস (WBCS) পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করতেন, এতে রাজ্যের চাকরিপ্রার্থীদের কঠিন প্রতিযোগিতার সম্মুখীন হতে হতো। এমনই ১অভিযোগ আসছিলো পশ্চিমবঙ্গের চাকরিপ্রার্থীদের তরফ থেকে। এবার শেষ পর্যন্ত রাজ্যের চাকরিপ্রার্থীদের আবেদনে সাড়া দিতে চলেছে পশ্চিমবঙ্গ পাবলিক সার্ভিস কমিশন তথা রাজ্য সরকার।

সম্প্রতি রাজ্য সরকারও এই বিষয়ে একটু নড়েচড়ে বসেছে। এই বিষয়ে রাজ্য সরকারের তরফ থেকে পাবলিক সার্ভিস কমিশনকে সুনির্দিষ্ট প্রস্তাবনা তৈরী করতে নির্দেশ দেওয়া হয়েছিল। পাবলিক সার্ভিস কমিশন একটি রূপরেখা তৈরি করে ইতিমধ্যে কর্মীবর্গ এবং প্রশাসনিক দপ্তরে পাঠিয়েছে। সূত্রের খবর, এই বিষয়ে দ্রুত সিদ্ধান্ত নিতে পারে রাজ্য প্রশাসন। পাশাপাশি রাজ্য পিএসসি (WBPSC) -র তরফেও বিজ্ঞপ্তি জারি করে জানানো হবে।

চাকরির খবরঃ TCS কোম্পানিতে কর্মী নিয়োগ চলছে